সংবাদ শিরোনাম

আদালতে খালেদা জিয়া, যুক্তিতর্ক চলছে

পথের খবর

বুধবার সকালে রাজধানীর বকশীবাজার আলিয়া মাদ্রাসায় স্থাপিত বিশেষ আদালতে পৌঁছার পর পরই বিচারক ড. আখতারুজ্জামান মামলার শুনানি শুরু করেন।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে খালেদা জিয়ার পক্ষে তাঁর আইনজীবী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ যুক্তিতর্ক শেষ করেন। তারপর গতকাল থেকেই আদালতে শুরু হয় এ মামলার অন্য আসামিদের যুক্তিতর্ক।

নিজের যুক্তিতর্ক শেষ হলেও এখন থেকে মামলার প্রতিটি নির্ধারিত তারিখে এবং অন্য আসামিদের যুক্তিতর্ক চলাকালে রাজধানীর বকশীবাজার আলিয়া মাদ্রাসায় স্থাপিত বিশেষ আদালতে উপস্থিত থাকতে হবে বেগম খালেদা জিয়াকেও।

গতকাল বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষে দুটি আবেদন দাখিল করা হয়। একটি হলো তাঁকে স্থায়ী জামিন দেওয়ার জন্য এবং অন্যটি হলো, তাঁর পক্ষে যুক্তিতর্ক শেষ হয়ে যাওয়ায় অন্য আসামিদের যুক্তিতর্ক চলাকালে আগামী তিন কার্যদিবস যেন খালেদা জিয়াকে আদালতে হাজির না হতে হয়।

তবে দুটি আবেদনই নামঞ্জুর করেন বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ড. আখতারুজ্জামান। ফলে অন্য আসামিদের যুক্তিতর্কের সময়ও খালেদা জিয়াকে আদালতে উপস্থিত থাকতে হবে। এ ছাড়া স্থায়ী জামিন না হওয়ার কারণে মামলার প্রতিটি তারিখেই আদালতে হাজির হতে হবে বিএনপির প্রধানকে।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, ২০০৫ সালে কাকরাইলে সুরাইয়া খানমের কাছ থেকে ‘শহীদ জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট’-এর নামে ৪২ কাঠা জমি কেনা হয়। কিন্তু জমির দামের চেয়ে অতিরিক্ত এক কোটি ২৪ লাখ ৯৩ হাজার টাকা জমির মালিককে দেওয়া হয়েছে বলে কাগজপত্রে দেখানো হয়, যার কোনো বৈধ উৎস ট্রাস্ট দেখাতে পারেনি। জমির মালিককে দেওয়া ওই অর্থ ছাড়াও ট্রাস্টের নামে মোট তিন কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা অবৈধ লেনদেনের তথ্য পাওয়া গেছে।

২০১০ সালের ৮ আগস্ট জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে অর্থ লেনদেনের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়াসহ চারজনের নামে তেজগাঁও থানায় দুর্নীতির অভিযোগে এ মামলা করেছিলেন দুর্নীতি দমন কমিশনের সহকারী পরিচালক হারুন-অর-রশিদ।

এ মামলার অপর আসামিরা হলেন, বেগম খালেদা জিয়ার সাবেক রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, হারিছের তখনকার সহকারী একান্ত সচিব ও বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌচলাচল কর্তৃপক্ষের নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার উপস্থিতিতে অন্য আসামিদের যুক্তিতর্ক শুরু হয়েছে।

সর্বশেষ আপডেট
» জানতামই না আমার এত খুঁত!
» যে কীর্তিতে সবাইকে ছাড়িয়ে মিরপুর স্টেডিয়াম
» হার নিশ্চিত জেনে সুযোগ নিয়েছে সরকার
» শাম্মী আক্তার আর নেই
» কাটা পড়ছে যশোর রোডের দ্বিশতবর্ষী ২৩১২টি গাছ
» স্বর্ণের ভরি ৫০ হাজার টাকা ছাড়াল
» রোহিঙ্গাদের এখনই ফেরত পাঠানো নিরাপদ হবে না: অ্যামনেস্টি
» আদালতে খালেদা জিয়া, যুক্তিতর্ক চলছে
» কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়ায় নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু
» ৮ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল
» ডিএনসিসি নির্বাচনে আ.লীগের প্রার্থী আতিকুল
» প্রিন্ট উচ্চশিক্ষায় বৃত্তি দেবে ব্রিটিশ কাউন্সিল
» উত্তরা মেডিক্যালের ৫৭ শিক্ষার্থীর শিক্ষা কার্যক্রমে বাধা নেই
» শীতের সবজি সতেজ থাকুক
» ৩০০ বছরের আত্মার সঙ্গে বিয়ে!
» ডিএনসিসি নির্বাচনে একক প্রার্থী দেবে ১৪ দল
» বাল্যবিয়ের ভোজে অংশ নিলেন বর্তমান-সাবেক ৫ ইউপি সদস্য!
» আট ব্যাংকের সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল
» মাওলানা সাদ ‘বিরোধিতা’র নেপথ্যে
» শিক্ষা শেষে চাকরি সুবিধায় গ্রিন ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি
» ভালুকায় প্রাইভেটকার-অ্যাম্বুলেন্স সংঘর্ষ, আগুন
» শ্রীনগরে ছুরিকাঘাতে দিনমজুরের মৃত্যু
» প্রতিষ্ঠার ৭০ বছরে ছাত্রলীগ
» বিনামূল্যে আইনি সহায়তায় শেখ সালাহ্উদ্দিন অ্যাসোসিয়েটস
» ফোর-জি’র লাইসেন্স নিয়ে বিটিআরসির বিজ্ঞপ্তি স্থগিত
» রোহিঙ্গা হত্যার স্বীকারোক্তি মিয়ানমার সেনাবাহিনীর
» তাবলিগের বিক্ষোভ, যানজটে দুর্ভোগ
» মায়ের কোল থেকে পড়ে গিয়ে…
» যেভাবে সময় নিয়ন্ত্রণ করবেন
» প্রাণ দিয়ে অপমানের জবাব দিল তরুণী

জাতীয়

আরও খবর »

কাটা পড়ছে যশোর রোডের দ্বিশতবর্ষী ২৩১২টি গাছ

পথের খবর

উন্নয়নের নামে পরিবেশ বিধ্বংসী এমন উদ্যোগে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে সচেতন মহলে। সোশাল মিডিয়াসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে পরিবেশবাদীরা সরকারি এমন উদ্যোগের তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। তারা বলছেন, বাংলাদেশ-ভারত ব্যবসার সম্প্রসারণ, বেনাপোল সীমান্তের গুরুত্ব বিবেচনায় সড়কটি ৬ লেনে উন্নীত করার বিকল্প নেই। কিন্তু গাছ কেটে উন্নয়ন দেখতে চান না তারা। ঐতিহাসিক যশোর রোডের গাছ কাটা বন্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে বেসরকারি স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক শেখ মো. মহিবুল্লাহর পক্ষে গত সোমবার সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ইশরাত জাহান আইনি নোটিশ দিয়েছেন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় যশোরের জেলা প্রশাসক মো. আশরাফ উদ্দিন বলেন, মহামান্য রাষ্ট্রপতির যশোর সফরের ব্যাপারে বঙ্গভবনে সভা করে ফিরছি। নোটিশ পাবার বিষয়টি যশোরে ফিরে বলতে পারব।

এদিকে পশ্চিমবঙ্গে যশোর রোড সমপ্রসারণের কাজ মামলায় আটকে রয়েছে। কলকাতা হাইকোর্টের গ্রিন ট্রাইব্যুনালে আর্জি জানানো হয়েছে ওই গাছগুলোকে হেরিটেজ তকমা দিয়ে কাটা যেন বন্ধ রাখা হয়। তার পরিবর্তে বিকল্প পথ নিয়ে চিন্তাভাবনা যেন করা হয়।

সূত্র জানায়, ২০১৭ সালের ২১ মার্চ একনেকের সভায় ৩শ’ ২৮ কোটি টাকা ব্যয়ে যশোর-বেনাপোল জাতীয় সড়কের (দড়াটানা-বেনাপোল পর্যন্ত) ৩৮ কিলোমিটার সড়ক প্রশস্তকরণ প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়। মহাসড়কের প্রস্থ ৭ দশমিক ৩ মিটার থেকে বৃদ্ধি করে ১০ দশমিক ৩ মিটার করা হবে। একইসঙ্গে সড়কের উভয়পাশে এক মিটার করে মাটির জায়গা রাখা হবে। এতে সড়কের প্রস্থ দাঁড়াবে ১২ দশমিক ৩ মিটার। সব মিলিয়ে রাস্তার দুইপাশে পাঁচ মিটার সম্প্রসারণ করা হবে। প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে হলে মহাসড়কের উভয় পাশের মোট ২ হাজার ৩১২টি গাছ কাটতে হবে।

গত ৬ জানুয়ারি যশোরের জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন কিন্তু সিদ্ধান্তের সাথে একমত পোষণ করতে না পারায় উপস্থিতির সাক্ষর করেননি, এমন একজন কথা বলেন এ প্রতিবেদকের সাথে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে তিনি বলেন, ‘দেখে মনে হলো এমপি থেকে শুরু করে সাংবাদিক পর্যন্ত সবাইকে আগেভাগে ম্যানেজ করিয়ে সভায় আনা হয়েছে। সবাই যেন একে একে আত্মাহুতি দিলেন। মনের কষ্টে আমি সইটুকু না করে নিরব প্রতিবাদ জানালাম।’ ওই সভায় তিনজন সংসদ সদস্য, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানসহ জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক ও সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা সর্বসম্মতিক্রমে গাছ কেটে ফেলার সিদ্ধান্ত নেন।

মাটি পরীক্ষার পর যশোর রোড সম্প্রসারণের লক্ষ্যে ২০১৭ সালের মাঝামাঝি পেট্রাপোল সীমান্ত লাগোয়া বনগাঁ শহরে ৩০-৪০টি শতবর্ষী প্রাচীন গাছ কাটা বন্ধে পরিবেশবিদরা আন্দোলন শুরু করেন। কলকাতা হাইকোর্টে আর্জি জানান। সেই আর্জির জেরেই বন্ধ হয়েছে কলকাতা অংশের গাছ কাটা।

কলকাতার প্রস্তাবিত সম্প্রসারণে দু’লেনের রাস্তা করার কথা ছিল মধ্যমগ্রাম থেকে বনগাঁ শহর পর্যন্ত। পথে বারাসত, হাবড়া ও বনগাঁয় হওয়ার কথা ছিল ফ্লাইওভার। আদালতে আবেদনের কারণে সম্প্রসারণ বন্ধ রয়েছে।

অবশ্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান পিকুল বলেন, গাছের কারণে দুর্ঘটনায় অনেক মৃত্যু হচ্ছে। যে ঐতিহ্য মানুষের জীবন নেয়, সেই ঐতিহ্য ধরে রাখতে চাই না। সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী জাহাঙ্গীর আলম বলেন, রোড সেইফটির পয়েন্ট অব ভিউ থেকে গাছ অবশ্যই কাটতে হবে।

যশোর মাইকেল মধুসূদন (এমএম) কলেজের ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ছোলজার রহমান বলেন, সড়ক যদি দুর্ঘটনার কারণ হয়, তবে সড়কের বিকল্প হিসেবে বৃটিশ আমলে নির্মিত রেললাইন ডবল লেন করে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন সম্ভব।

জনউদ্যোগের আহ্বায়ক এমআর খায়রুল উমাম বলেন, এতগুলো গাছ কেটে ফেলা আত্মঘাতি সিদ্ধান্ত। যশোরবাসী ঐতিহ্য রক্ষায় সোচ্চার নয়। এজন্য একে একে সব ঐতিহ্য ধ্বংস হচ্ছে।

ইতিহাস-ঐতিহ্য ও মুক্তিযুদ্ধের স্মারকচিহ্ন যশোর-বেনাপোল সড়কের ঐতিহাসিক প্রায় দ্বিশতবর্ষী গাছ কেটে রাস্তা সম্প্রসারণের উদ্যোগ নিয়েছে সড়ক বিভাগ। আমলা থেকে জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ী থেকে সাংবাদিক সবাই একবাক্যে গাছগুলো কেটে ফেলার ‘চূড়ান্ত রায়’ সড়ক বিভাগের হাতে তুলে দিয়েছেন।

ক্রিকেট আপডেট
জাতীয়
রাজনীতি
আন্তর্জাতিক
দেশজুড়ে
খেলাধুলা
আইন-আপরাধ
অর্থ-বাণিজ্য
বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
স্বাস্থ্য
বিনোদন
দেশজুড়ে

আরও খবর »

কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়ায় নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু

পথের খবর

মাদারীপুর প্রতিনিধি : প্রায় পাঁচ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌরুটে আবার ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে।

বুধবার (১৭ জানুয়ারি) সকাল ৯টা ২০ মিনিটি এ রুটে ফেরি চলাচল শুরু হয়।

এর আগে ঘন কুয়াশার কারণে ভোর সাড়ে চারটা থেকে এ নৌপথে বন্ধ ছিল ফেরি চলাচল।

কাঁঠালবাড়ি ঘাটের ব্যবস্থাপক আবদুস সালাম হোসেন বলেন, কুয়াশা বেড়ে গেলে ভোররাত সাড়ে চারটা থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়। সকাল ৯টা ২০ মিনিটে আবার ফেরি চলাচল শুরু হয়। উভয় ঘাটে যানবাহনের চাপ আছে। তবে এখন ফেরি চালু হওয়ায় তা কমে যাবে বলে আশা করছি।

সাংসদ মুক্তি অসত্য তথ্য দিয়েছেন, ইসিকে দুদক

পথের খবর

সালাহউদ্দিন আহম্মেদ মুক্তিময়মনসিংহ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সালাহউদ্দিন আহম্মেদ মুক্তির বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। চিঠিতে বলা হয়েছে, সাংসদ মুক্তি নির্বাচন কমিশনে হলফনামার মাধ্যমে দাখিল করা সম্পদ বিবরণীতে সম্পদ কম দেখিয়ে অসত্য তথ্য দিয়েছেন।

দুদকের সচিব মো. শামসুল আরেফিন স্বাক্ষরিত চিঠিটি ৭ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে পাঠানো হয়েছে।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের আগে ২০১৩ সালের ২ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্রের সঙ্গে হলফনামার মাধ্যমে আট তথ্য জমা দেন সাংসদ সালাউদ্দিন। সেখানে তিনি তাঁর স্থাবর ও অস্থাবর মিলে মোট সাড়ে চার লাখ টাকার সম্পত্তি আছে বলে উল্লেখ করেন। কিন্তু দুদক বলছে নির্বাচন কমিশনে সম্পদের হিসাব দেওয়ার আগে গত ৩০ জুন ২০১৩ সালে উপ–কর অঞ্চল সার্কেল-৬–এ (মুক্তাগাছা) স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ ৫৬ লাখ ৪ হাজার বলে উল্লেখ করেন। তা ছাড়া সাংসদ তাঁর বাবার কাছ থেকে পাওয়া তিন লাখ টাকার সম্পদের তথ্যও নির্বাচন কমিশন এবং আয়কর বিবরণীতে উল্লেখ করেননি। দুদক এ ধরনের অসত্য হলফনামা দাখিলকে নৈতিকতা পরিপন্থী বলে উল্লেখ করেছে।

গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ আইন (আরপিও) অনুযায়ী, হলফনামায় মিথ্যা তথ্য দিলে ভোটের আগে এ তথ্য প্রমাণিত হলে নির্বাচন কমিশন সংশ্লিষ্ট প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করতে পারে। আর ভোটের পর কোনো তথ্যের অমিল পেলে সংশ্লিষ্ট সাংসদের সদস্যপদ বাতিল করতে পারে। এ জন্য সংসদ সদস্য পদ বাতিল করে তা স্পিকারের দপ্তরে পাঠানোর ক্ষমতা রয়েছে কমিশন। এরপর সংসদ সচিবালয় ওই আসন শূন্য ঘোষণা করতে পারে।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের আইন শাখার এক কর্মকর্তা পথের খবরকে বলেন, সাংসদ সালাউদ্দিনের বিষয়ে দুদকের অনুসন্ধানের কথা তিনি শুনেছেন। তবে এ ব্যাপারে এখনো কোনো চিঠি তার হাতে আসেনি। এলে অভিযোগ অনুসন্ধান করে কমিশন আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে।

আদালতে খালেদা জিয়া

পথের খবর

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ষষ্ঠ দিনের মতো বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পক্ষে যুক্তিতর্ক শুনানির দিন ধার্য আছে। আজ বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে খালেদা জিয়া পুরান ঢাকার বকশীবাজারে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালতে হাজির হন।

এর আগে এই মামলায় খালেদা জিয়ার দুজন আইনজীবী তাঁদের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেছেন। তৃতীয় আইনজীবী সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ জে মোহাম্মদ আলী যুক্তিতর্ক উপস্থাপন অব্যাহত রেখেছেন।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল প্রথমে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ করেছেন।

একই আদালতে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার যুক্তিতর্ক শুনানির দিন ধার্য আছে।

এর আগে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় পঞ্চম দিনের যুক্তিতর্ক উপস্থাপনে খালেদা জিয়ার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, জিয়া অরফানেজের টাকা তছরুপ হওয়ার কোনো তথ্য-প্রমাণ নেই। এই মামলায় রাজনৈতিক গন্ধ আছে

২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে করা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় আসামি হলেন খালেদা জিয়া, তাঁর বড় ছেলে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ ছয়জন। তারেক রহমানের বিরুদ্ধে এর মধ্যে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে করা জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় আসামি হলেন খালেদা জিয়াসহ চারজন।

কুমিল্লার ১৫ টি ইউপি নির্বাচনে প্রার্থী ঘোষণা

 পথের খবর ডেস্ক ● আসন্ন ইউনিয়ন (ইউপি) নির্বাচনে কুমিল্লায় ১৫টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৮ ডিসেম্বর। এ উপলক্ষ্যে দলীয় প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। গত শুক্রবার রাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণভবনে অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের এক সভায় এসব প্রার্থীদের চূড়ান্ত করা হয়।

আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রকাশিত প্রার্থী তালিকা অনুসারে, কুমিল্লায় আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন জেলার লাকসাম উপজেলার বাকই দক্ষিণ ইউনিয়নে মো. আবদুল আউয়াল, লালমাই উপজেলার বাকই উত্তর ইউনিয়নে মো. আইউব আলী, মুদাফরগঞ্জ উত্তর ইউনিয়নে মো. শাহিদুল ইসলাম (শাহীন), মুদাফরগঞ্জ দক্ষিণ ইউনিয়নে আবদুর রশিদ, নাঙ্গলকোট উপজেলার রায়কোট উত্তর ইউনিয়নে মো. রফিকুল ইসলাম মজুমদার, রায়কোট দক্ষিণ ইউনিয়নে মজিবুর রহমান (মজিব), দৌলখাঁড় ইউনিয়নে হাজী আবুল কালাম ভুঁইয়া, জোড্ডা পশ্চিম ইউনিয়নে মো. মাসুদ রানা ভুঁইয়া, জোড্ডা পূর্ব ইউনিয়নে মো. আনোয়ার হোসেন মিয়াজী। বটতলী ইউনিয়নে এনকেএম সিরাজুল আলম, আদ্রা উত্তর ইউনিয়নে মো. তাজুল ইসলাম মজুমদার, আদ্রা দক্ষিণ ইউনিয়নে মো. আবদুল ওহাব, দাউদকান্দি উপজেলার ইলিয়টগঞ্জ (দক্ষিণ) ইউনিয়নে মো. মামুনুর রশিদ, বারপাড়া ইউনিয়নে মো. মনির হোসেন তালুকদার ও দৌলতপুর ইউনিয়নে মো. মাকসুদুল আলম জমাদার।

গত ১২ নভেম্বর নির্বাচন কমিশন থেকে দেশের ১৩৩টি পৌরসভা, ইউনিয়ন পরিষদ ও উপজেলা পরিষদের সাধারণ ও উপ-নির্বাচনে ভোটের তারিখ ২৮ ডিসেম্বর নির্ধারণ করে মাঠ পর্যায়ের রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কাছে ভোটের তফসিল ঘোষণার জন্যে নির্দেশনা পাঠায়। এর আলোকে “বিভিন্ন পদে সাধারণ ও উপ-নির্বাচনের নির্ধারিত ভোটের তারিখ ঘোষনা করে সংশ্লিষ্ট স্থানীয় রিটার্নিং কর্মকর্তাগণ এ সংক্রান্ত গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে।”

তফসীল অনুযায়ী, কুমিল্লা জেলার বিভিন্ন উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নে সাধারণ নির্বাচন ও ৭টি ইউনিয়ন বা ওয়ার্ডে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

এ বিষয়ে কুমিল্লা জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. খোরশেদ আলম বলেন, ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ২৭ নভেম্বর, বাছাই ২৮ ও ২৯ নভেম্বর ও প্রত্যাহারের শেষ সময় ৬ ডিসেম্বর ও প্রতীক বরাদ্ধ ৭ ডিসেম্বর এবং ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে ২৮ ডিসেম্বর।

১৫টি ইউপিতে সাধারণ নির্বাচন ও ৭টি ওয়ার্ডে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আমরা সুষ্ঠু ও সুন্দর নির্বাচন উপহার দিতে সব ধরনের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করবো।

ঝিনাইদহে আ.লীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা

ডেস্ক রিপোর্ট‍ঃ বিবিসি নিউজ ২৪ বিডি

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে জলিল মোল্লা(৫০)নামে এক আওয়ামী লীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

শুক্রবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার চটকাবাড়িয়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে। জলিল মোল্লা উপজেলার নটুয়াপাড়া গ্রামের আব্দুল গফুর মোল্লার ছেলে।

কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আমিনুল ইসলাম বলেন, রাত ৯টার দিকে জলিল মোল্লা চটকাবাড়িয়া বাজারে বসে ছিলেন। এ সময় দুর্বৃত্তরা লোহার রড ও ধারালো দা দিয়ে তাকে কুপিয়ে জখম করে। বাজারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। রাত ১১টার দিকে তিনি মারা যান।

প্রেম প্রত্যাখ্যান করায়….

বরিশাল: প্রেম প্রত্যাখ্যান করায় বরিশালের উজিরপুরে শান্তা নামে এক কলেজছাত্রী বখাটের ছুরিকাঘাতের শিকার হয়েছেন। শান্তা বিএম কলেজের রাস্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ছাত্রী। শনিবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার ধামুরা বাজারের ভ্যান স্ট্যান্ডে আলাল নামে এক বখাটের ছুরিকাঘাতের শিকার হন ওই ছাত্রী। জানা গেছে, বিএম কলেজে বিকেলে প্রথম বর্ষের পরীক্ষা শেষ করে বাসে ধামুরা বন্দরে নেমে বাড়ি ফেরার পথে বখাটে আলালের হামলার শিকার হয় শান্তা। পরে স্থানীয়রা বখাটেকে ধাওয়া করলে সে পালিয়ে যায়। স্থানীয়দের সহায়তায় পুলিশ শান্তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যায়। সেখানে তার মুখমন্ডলে ১৩টি সেলাই দিয়ে তাকে বরিশাল শেরে-ই বাংলা মেডিকেলে প্রেরণ করে পুলিশ। শেরেই বাংলা মেডিকেলের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. সুব্রত পাল জানান, তার মুখমন্ডলে সেলাই দিয়ে তাকে হাসপাতালে আনা হয়েছে। তার অবস্থা স্থিতিশীল। তাকে মহিলা সার্জারি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। আহতের মা নিলুফা বেগম ও চাচা মো. লিটন জানান, বখাটে আলাল বিভিন্ন সময়ে শান্তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিত। তাকে বোঝানো হলেও সে কারো কথা শুনতো না। তার প্রেম প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়ায় শনিবার রাতে ধামুরা বাজারে ভ্যান স্ট্যান্ডে তাকে কুপিয়ে আহত করে আলাল। তারা এই ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করেন। এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী উজিরপুর থানার এসআই জসিম বলেন, শান্তা আগৈলঝাড়া উপজেলার সীমান্তবর্তী রতœপুর গ্রামের মৃত মোস্তফা সরদারের মেয়ে। ৩ বছর আগে থেকে পার্শ্ববর্তী উজিরপুর উপজেলার কাংশি গ্রামের বজলুর রহমানের ছেলে আলালের সাথে তার ঘনিষ্ট সম্পর্ক হয়। মাধ্যমিকের গন্ডি না পেরোনো আলাল ঢাকায় একটি চাইনিজ রেস্তোরায় বেয়ারার কাজ করে শান্তার পরিবারকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করতো। শান্ত ইতোপূর্বে ৩ বার আলালের বাড়ি গিয়েছিল। তাদের মধ্যে পারিবারিকভাবে বিয়ের কথাও হয়েছিলো। কিন্তু শান্তা বিএম কলেজে অনার্সে ভর্তি হওয়ার পরই তাদের সম্পর্কে ছেদ পড়ে। ইদানিং আলালের সন্দেহ হচ্ছিলো শান্তার সাথে অন্য কারোর সম্পর্ক আছে। এই ক্ষোভ-হতাশা থেকে সে ওই ছাত্রীকে ছুরিকাঘাত করতে পারে। বরিশালের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন জানান, পুলিশ তাকে গ্রেফতারের জন্য বিভিন্ন স্থানে অভিযান শুরু করেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের সহ কঠোর আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

সিলেটে বড় ভাইয়ের বিরুদ্ধে ছোট ২ ভাইকে হত্যার অভিযোগ

অনলাইন ডেস্ক‍ঃ বিবিসি নিউজ ২৪ বিডি

সিলেটের গোয়াইনঘাটে বড় ভাইয়ের হাতে আজিজুর রহমান (১০) ও মতিউর রহমান (৮) নামের ছোট দুই ভাই খুন হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার দুপুর ২টার দিকে এ ঘটনা ঘটলেও শনিবার সকালে নিহতদের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ঘাতক বড় ভাইকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহতদের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার দুপুর দুইটার দিকে গোয়াইনঘাট উপজেলার লক্ষ্মীনগর গ্রামের ইদ্রিছ আলীর পুত্র নুরুল ইসলাম (২৫) বেড়ানোর কথা বলে তার ছোট ভাইকে নিয়ে বের হয়। পরে উপজেলার মানান বিলে তাদেরকে নিয়ে গলা টিপে হত্যা করে পানিতে ফেলে পালিয়ে যায়। নিহত দুই ভাই আজিজুর রহমান ও মতিউর রহমান ওই দিন থেকে নিখোঁজ ছিল।

পরে রাতেই স্থানীয়দের সহযোগিতায় একই উপজেলার রুস্তমপুর ইউনিয়নের মাটিকাপা গ্রাম থেকে ঘাতক নুরুলকে আটক করে পুলিশের কাছে সোর্পদ করেন স্থানীয়রা। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের পরও সহোদরদের হত্যার বিষয়টি স্বীকার করছিল না নুরুল।

শনিবার সকালের দিকে মানান বিলে হতভাগা দুই সহোদরের লাশ ফুলে ভেসে ওঠলে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেন। পরে গোয়াইনঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলোয়ার হোসেন ও এসআই রফিক আহমদ সঙ্গীসহ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ দুটি উদ্ধার করে।

সৈয়দপুরে ৫ জুয়াড়িকে কারাদণ্ড দিল ভ্রাম্যমান আদালত

অনলাইন ডেস্কঃ বিবিসি নিউজ ২৪ বিডি

নীলফামারীর সৈয়দপুরে ৫ জুয়াড়িকে পাঁচদিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শনিবার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক আবু ছালেহ মো. মুসা জঙ্গী তাদের এ বায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নের ব্রমোত্তর ছালুয়াপাড়া এলাকার রফিকুল ইসলামের ছেলে আবু তালেব (২২), একই এলাকার মাহাতাব উদ্দিনের ছেলে আমিনুল (২১), ইসমাইলের ছেলে রব্বানী (২০), তাহের আলীর ছেলে মইনুল ইসলাম (৩১) ও আব্দুর রশীদের ছেলে এনামুল হক (২০)।

সৈয়দপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিরুল ইসলাম জানান, দুপুরে জুয়া খেলার সময় পুলিশ ৫ জনকে আটক করে। পরে তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হলে বিচারক তাদের এ ‍রায় দেন।

নামাজের সময়সূচি
Salat times for dhaka. Muslim Prayer Times Widget by Alhabib.
খেলাধুলা

আরও খবর »

যে কীর্তিতে সবাইকে ছাড়িয়ে মিরপুর স্টেডিয়াম

পথের খবর

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়াম অনেক সেঞ্চুরিরই সাক্ষী। আজ সেই মাঠেরই ‘সেঞ্চুরি’ হয়ে গেল। ইতিহাসের দ্রুততম সময়ে ১০০ ওয়ানডের আয়োজক হওয়ার কীর্তি গড়ল এই স্টেডিয়াম। কোনো মাঠে ১০০ ওয়ানডে হওয়ার কীর্তিই আছে আর মাত্র ৫ স্টেডিয়ামের। আসুন দেখে নিই এই মাঠের আরও কিছু রেকর্ড—

ওয়ানডে আয়োজনে সবার আগে সেঞ্চুরি ছুঁয়েছে শারজা ক্রিকেট গ্রাউন্ড। ১৯৯৬ সালের ১৪ এপ্রিল শারজার শততম ওয়ানডেতে খেলেছে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা। সবচেয়ে কম সময়ে শততম ওয়ানডে আয়োজন করতে যাচ্ছে শেরেবাংলা স্টেডিয়াম। অভিষেকের ১১ বছর ১ মাস ১০ দিনের মাথায় সেঞ্চুরি হলো শেরেবাংলার। পেছনে পড়ছে শারজা (১২ বছর ৯ দিন)

কুমিল্লার বিপক্ষে ব্যাটিংয়ে খুলনা

 পথের খবর
বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ৩৯তম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও খুলনা টাইটান্স। যেখানে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন খুলনা অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। দু’দলের আগের দেখায় বড় জয় পেয়েছিল কুমিল্লা।
মিরপুর শের-ই-বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দুপুর একটায় ম্যাচটি শুরু হয়।
কুমিল্লা লিগের খেলায় দুই ম্যাচ বাকি থাকতেই আসরের শীর্ষস্থান নিজেদের করে নিয়েছে। তবে খুলনার জন্য এ ম্যাচটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কেননা এ ম্যাচ জিতলে শীর্ষ দুইয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে তাদের। আর শীর্ষ দুইয়ে থাকলে ফাইনালে যাওয়ার জন্য দু’বার সুযোগ থাকে।
১০ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে কুমিল্লা। ১১ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় ঢাকা ডায়নামাইটস। তবে ঢাকার সমান পয়েন্ট পেলেও নেট রান রেটে পিছিয়ে থাকায় তৃতীয় খুলনা।
খুলনা: নাজমুল হোসেন শান্ত, মাহমুদউল্লাহ, নিকোলাস পুরান, আরিফুল হক, কার্লোস ব্র্যাথওয়েট, আবু জায়েদ, মোহাম্মদ ইরফান, আফিফ হোসেন, বেনি হাওল, মাইকেল ক্লিঙ্গার, মোশারফ হোসেন, রুবেল হোসেন

কুমিল্লা: তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, আল আমিন, মাহেদি হাসান, রকিবুল হাসান, মেহেদি হাসান রানা, জস বাটলার, মারলন স্যামুয়েলস, গ্রায়েম ক্রেমার, সলোমন মায়ার, শোয়েব মালিক।

এই মৌসুমে কাতালানরাই শীর্ষে

স্পোর্টস ডেস্ক
আপডেট: ২০১৭-১০-১৬ ৩:৩৭:০৮ পিএম

ছবি: সংগৃহীত

কাতালান প্রদেশের স্বাধীনতার দাবিতে সম্প্রতি গণভোট অনুষ্ঠিত হয়। গণভোটের রায় পক্ষে গেলে স্বাধীনতার ঘোষণা সুগম করতে গত মাসে একটি আইন পাস করেছিল আঞ্চলিক সরকার। তবে কোনো বৈধতা দেয়নি স্প্যানিশ সরকার।

এদিকে কাতালান স্বাধীন হলে বার্সেলোনার মতো বিশ্বসেরা ক্লাবকে আর স্পেনভিত্তিক অঞ্চলে খেলতে দেখা যেত না। একটি দেশের ক্লাব আরেকটি দেশের লিগে খেলার নজির রয়েছে। ধারণা করা হয় স্বাধীন হলে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে চলে যেতে পারে বার্সা! তবে, সেটা এখনও হয়নি।

স্পেনের সাতটি ডিসিপ্লিনে কাতালান ক্লাব বার্সা এই মৌসুমে শীর্ষে রয়েছে। তাই বার্সা যদি স্পেন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়েই যায়, সেক্ষেত্রে দেশটির ক্রীড়াক্ষেত্রে ব্যাপক পরিবর্তন চলে আসবে।

ফুটবলের বিশ্বসেরা ক্লাব বার্সেলোনা এই মুহূর্তে স্প্যানিশ লা লিগায় পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে। মেসি-সুয়ারেজদের ক্লাবটি সর্বোচ্চ ২২ পয়েন্ট নিয়ে এক নম্বরে অবস্থান করছে। ১৭ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে রোনালদো-বেলদের রিয়াল মাদ্রিদ। বার্সার ফুটসাল দলও এই মৌসুমে দুর্দান্ত। মেসিদের মতো তারাও এখনও অপরাজিত। মেসিরা ৮ ম্যাচের সাতটিতে জয় আর একটিকে ড্র করলেও এই মৌসুমের ৫ ম্যাচের পাঁচটিতেই জিতেছে বার্সার ফুটসাল দলটি। সর্বোচ্চ পয়েন্ট নিয়ে তারা টেবিলের শীর্ষে।

বার্সার নারী ফুটবল দলও দুর্দান্ত ফর্মে। এই মৌসুমে নিজেদের খেলা ৬ ম্যাচের সবক’টিতেই জিতেছে দলটি। সর্বোচ্চ ১৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে বার্সার নারী ফুটবলাররা। তবে, স্পেনের আরেক জায়ান্ট অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদও ১৮ পয়েন্ট পেয়েছে। গোল ব্যবধানে পিছিয়ে অ্যাতলেতিকো দুইয়ে। বার্সার নারী দলটি এই মৌসুমে ৬ ম্যাচে গোল করেছে সর্বোচ্চ ২৭টি। পক্ষান্তরে মাত্র একটি গোলই হজম করেছে দলটি।বার্সার বাস্কেটবল দলটিও রয়েছে উড়ন্ত অবস্থায়। লিগা এসিবিতে নিজেদের খেলা প্রথম চার ম্যাচের চারটিতেই জিতেছে কাতালানরা। দুইয়ে থাকা রিয়ালও অবশ্য জিতেছে চারটি ম্যাচে। তবে, পয়েন্ট ব্যবধানে পিছিয়ে রিয়াল। বার্সার হ্যান্ডবল দলও কিন্তু এই মৌসুমে পিছিয়ে নেই। অ্যাসোবেল লিগের পয়েন্ট টেবিলে বার্সার এই দলটিও শীর্ষে অবস্থান করছে। সর্বোচ্চ ১২ পয়েন্ট পাওয়া বার্সার এই হ্যান্ডবল দলের সমান পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে স্পেনের আরেক ক্লাব হ্যালভেশিয়া।

রোলার হকি আর ভলিবলেও বার্সার জয়গান। স্প্যানিশ লিগের এই মৌসুমে কাতালানদের এই দুটি ক্লাবই নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে জয় তুলে নিয়েছে। তাতে সর্বোচ্চ ৬ পয়েন্ট করে নিয়ে টেবিলের শীর্ষে বার্সার ক্লাবগুলো।

স্পেনের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের ভূমধ্যসাগর তীরবর্তী প্রায়

বিনোদন

আরও খবর »

শাম্মী আক্তার আর নেই

পথের খবর

তার স্বামী সংগীতশিল্পী আকরামুল ইসলাম বলেন, শাম্মী আক্তার ছয় বছর ধরে ব্রেস্ট ক্যানসারে ভুগছিলেন। শাম্মী আক্তার বাসাতেই ছিলেন। মঙ্গলবার দুপুরে বেশি অসুস্থ হয়ে পড়ায় বারডেম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। তবে হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই বিকাল ৪টার দিকে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। এখন তার মরদেহ নিয়ে বাসায় ফিরে এসেছি।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, আগামীকাল বুধবার জোহরের নামাজের পর শান্তিনগর আমিনবাগ জামে মসজিদে শাম্মী আক্তারের জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর তাকে শাহজাহানপুর কবরস্থানে দাফন করা হবে।

‘ঢাকা শহর আইসা আমার’, ‘আমি তোমার বধূ’, ‘মনে বড় আশা ছিল’, ‘আমি যেমন আছি’, ‘বাংলার মাটি’, ‘বিদেশ গিয়ে’, ‘সইতে পারি না’, ‘ঝিলমিল’, ‘আমার মনের বেদনা’, ‘ফুলে ফুলে বাসা’, ‘আমার নায়ে পার হইতে লাগে ষোলো আনা’, ‘এই রাত বলে’সহ অসংখ্য জনপ্রিয় গানের শিল্পী শাম্মী আক্তার।

‘শাম্মী’ নামে পরিচিত হলেও তার আসল নাম শামীমা আক্তার। শামীমাকেই আদর করে সবাই ডাকতেন ‘শাম্মী’ বলে। সেই থেকে শামীমা শাম্মী নাম নিয়ে চলেছেন।

শাম্মী আক্তার ১৯৫৭ সালের ২২ সেপ্টেম্বর খুলনায় জন্মগ্রহণ করেন। মাত্র ছয় বছর বয়সে তার সংগীত জীবনের শুরু হয়। বাবা শামসুল করিম সরকারি চাকরি করতেন। বাবার বদলির কারণে দেশের কয়েকটি জেলায় বিভিন্ন শিক্ষকের কাছে সংগীতের তালিম নেওয়ার সুযোগ পান তিনি। ১৯৭০ সালে তিনি খুলনা বেতারে তালিকাভুক্ত হন। ১৯৭৫ সালে ঢাকায় এসে গান গাওয়ার আমন্ত্রণ পান। খুলনা থেকে ঢাকায় চলে আসেন শাম্মী আখতার। নিয়মিত গাইতে শুরু করেন বেতার ও টেলিভিশনে। প্রখ্যাত সংগীত পরিচালক সত্য সাহা তাকে ‘অশিক্ষিত’ চলচ্চিত্রে গান গাওয়ার সুযোগ দেন। প্রথম প্লেব্যাকেই দারুণ জনপ্রিয় হয় তার গাওয়া গান ‘ঢাকা শহর আইসা আমার আশা ফুরাইছে।

চলচ্চিত্রের গানে সাফল্য তাকে শ্রোতাদের খুব কাছে নিয়ে যায়। তিন শতাধিক চলচ্চিত্রের গানে কণ্ঠ দেন শাম্মী আক্তার। ‘ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না’ ছবির ‘ভালোবাসলেই সবার সাথে ঘর বাঁধা যায় না’ গানের জন্য ২০১০ সালে শাম্মী আক্তার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। ১৯৭৭ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি আকরামুল ইসলামের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন তিনি।

বরেণ্য সংগীতশিল্পী শাম্মী আক্তার আর নেই। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মঙ্গলবার বিকালে চামেলিবাগের বাসা থেকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। তার বয়স হয়েছিল ৬০ বছর। তিনি স্বামী, এক ছেলেসহ আত্মীয়স্বজন ও অসংখ্য শুভাকাঙ্ক্ষী রেখে গেছেন।

শিরোনাম

জানতামই না আমার এত খুঁত!     « »     যে কীর্তিতে সবাইকে ছাড়িয়ে মিরপুর স্টেডিয়াম     « »     হার নিশ্চিত জেনে সুযোগ নিয়েছে সরকার     « »     শাম্মী আক্তার আর নেই     « »     কাটা পড়ছে যশোর রোডের দ্বিশতবর্ষী ২৩১২টি গাছ     « »     স্বর্ণের ভরি ৫০ হাজার টাকা ছাড়াল     « »     রোহিঙ্গাদের এখনই ফেরত পাঠানো নিরাপদ হবে না: অ্যামনেস্টি     « »     আদালতে খালেদা জিয়া, যুক্তিতর্ক চলছে     « »     কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়ায় নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু     « »     ৮ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল     « »     ডিএনসিসি নির্বাচনে আ.লীগের প্রার্থী আতিকুল     « »     প্রিন্ট উচ্চশিক্ষায় বৃত্তি দেবে ব্রিটিশ কাউন্সিল     « »    

Editor: Md. Nur Uddin
Address: D.I.T Road Malibagh, Dhaka-1217